Category Archives: ইউপি নির্বাচন

পাঙ্গাসী ইউপি’র সাবেক চেয়ারম্যান আলমগীর খানের ইন্তেকাল

নূর-এ আলম সিদ্দিক, সংবাদদাতা
সিরাজগঞ্জ: সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জের পাঙ্গাসী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান, উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা এবং সাবেক এমপি শাহজাহান খানের ২য় পুত্র আলমগীর কবির খান আর নেই।7

গত শনিবার(২৩ জুন’২০১৮) রাত ১টা ১০ মিনিটে সিরাজগঞ্জ আভিসিনা হাসাপতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেছেন(ইন্নাল্লিাহে ওয়া—–রাজিউন)। তাঁর বয়স হয়েছিল ৬৫ বছর। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ২ছেলে, ১ মেয়ে, আত্মীয়-স্বজনসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

শনিবার বাদ যোহর গ্রামপাঙ্গাসী ডিগ্রি কলেজ মাঠে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। এতে এলাকার বিপুলসংখ্যক জনগণসহ বিভিন্ন সামাজিক ও রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীরা অংশ নেন। এদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন বাংলাদেশ কৃষকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কৃষিবিদ সাখাওয়াত হোসেন সুইট, উপজেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এম খায়রুল ইসলাম মাস্টার।
এদিকে তাঁর মৃত্যুতে অন্যদের মধ্যে শোক প্রকাশ করেছেন রায়গঞ্জ তাড়াশ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব গাজী ম. ম আমজাদ হোসেন মিলন, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ্ব আব্দুল হান্নান খান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাদি আলমাজি জিন্নাহ, সাধারণ সম্পাদক মোঃ শরিফ উল আলম শরিফ, সিরাজগঞ্জ বার্ত. কম সম্পাদক নূরনবী সিদ্দিক সুইন, রায়গঞ্জ প্রেসক্লাব।

সিরাজগঞ্জ বার্ত. কম সম্পাদক নূরনবী সিদ্দিক সুইন তার বিবৃতিতে বলেন, এলাকাবাসী একজন সাহসী সমাজসেবককে হারালেন। তিনি অনেক জনপ্রিয় চেয়ারম্যান ছিলেন। তার সময়কালে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্ম কাণ্ডের জন্য অনেক তৎপর ছিলেন। আমি তার বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি। সেই সাথে তার শোকার্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।
সিরাজগঞ্জ বার্তা.কম/২৪ জুন’২০১৮/এনএস/

সংসদ নির্বাচন: সিরাজগঞ্জ-৩ আসনে মনোনয়ন চান যে সব নেতা

সিরাজগঞ্জ: ঐতিহাসিক চলনবিলের শস্য ও মৎস ভাণ্ডার তাড়াশ ও রায়গঞ্জ উপজেলা, সাথে নবসৃষ্ঠ সলংগা থানা। আর এই মিলে ৬৪-সিরাজগঞ্জ- ০৩ আসন। আসন্য একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের হাওয়ায় আওয়ামী লীগ ও বিএনপির সম্ভাব্য প্রার্থীরা নানা কৌশলে তাদের প্রচারণা শুরু করেছেন।

সভা-সমাবেশ, ব্যানার, ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে পুরো এলাকা। শুভেচ্ছা বিনিময়, সংবাদ সম্মেলন ও মতবিনিময় সভার মাধ্যমে নিজেদের প্রার্থিতার কথা জানান দিচ্ছেন তারা।

আর এরই ধারাবাহিকতায় এবার ৬৪-সিরাজগঞ্জ- ০৩ আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে রয়েছেন বর্তমান সংসদ সদস্য গাজীম, ম, আমজাদ হোসেন মিলন, পেট্রোবাংলার সাবেক চেয়ারম্যান ড.হোসেন মনসুর, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ব্যবসায়ী লুৎফর রহমান দিলু, কেন্দ্রীয় কৃষকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন সুইট, তাড়াশ উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মো.আব্দুল হক, স্বাচিপ নেতা ও ঢাকা শিশু হাসপাতালের ইউরোলজি বিভাগের চেয়ারম্যান ডা: আব্দুল আজিজ, সাবেক সংসদ সদস্য ইসহাক হোসেন তালুকদারের ছেলে এ্যাড. ইমন তালুকদার, সলঙ্গা থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি রায়হান গফুর।

অপরদিকে, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ঘিরে ভিতরে ভিতরে প্রস্তুত হচ্ছে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন বর্জন করা বিএনপিও। এবার ৬৪-সিরাজগঞ্জ-৩ আসনে ১৮ দলীয় জোটের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা হলেন, সাবেক সংসদ সদস্য আব্দুল মান্নান তালুকদার, বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা সাইফুল ইসলাম শিশির, তাড়াশ উপজেলা বিএনপি সভাপতি খন্দকার সেলিম জাহাঙ্গীর, রায়গঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান ভিপি আইনুল হক ও ঢাকা আইনজীবী ফোরামের নেতা অ্যাডভোকেট গোলাম মোস্তফা।

কৃষকলীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন সুইট নিজেকে ‘যোগ্য’ প্রার্থী উল্লেখ করে টেলিফোনে সিরাজগঞ্জ বার্তা.কমকে বলেন, ২০০১, ২০০৮ ও ২০১৪ সালের নির্বাচন ও ২০১৬ সালের উপ-নির্বাচনে মনোনয়ন চেয়েছি।হাইকমান্ড দেয়নি। কিনতু আমি এখনও এলাকার মানুষের জন্য, দলকে আরও শক্তিশালী করার জন্য মাঠ চষে বেড়াচ্ছি। আশাকরি তুণমূলের সমর্থন, ব্যক্তিগত ইমেজ ও দলীয় কার্যক্রম বিবেচনায় আসনটি ধরে রাখতে দল এবার আমাকেই মনোনয়ন দেবে।
সিরাজগঞ্জ বার্তা.কম/১১ অক্টোবর’২০১৭ওও

জনগণ ভোট দিতে পারলে বিজয়ী হবো: বিএনপি প্রার্থী আ: জব্বার

কে এম আব্দুল আলীম

শাহজাদপুর ঘুরে এসে: জেলার শাহজাদপুর উপজেলার ২ নং গাড়াদহ ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন ৫ম ধাপে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। আগামী ২৮ মে অনুষ্ঠিতব্য এ নির্বাচনে সরকারদলীয় আওয়ামী লীগের বর্তমান চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম ও বিএনপির মনোনীত সাবেক ২ বারের চেয়ারম্যান আব্দুল জব্বার অংশ নিচ্ছেন। সাইফুল ইসলাম প্রচার প্রচারণায় সুবিধাজনক অবস্থানে থাকলেও বেকায়দায় রয়েছেন বিএনপির প্রা্র্থী আ: জব্বার।

ঠিকমতো প্রচার প্রচারণা চালাতে পারছেন না বলেও সাংবাদিকদের জানিয়েছেন উপজেলা বিএনপির প্রভাবশালী এ নেতা।

সিরাজগঞ্জ বার্তাকে তিনি বলেন, দল নির্দেশিত হয়ে নির্বাচনে অংশ নিয়েছি

বিএনপির মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুল জব্বার।

বিএনপির মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুল জব্বার।

। মনোনয়ন জমা দেওয়া থেকে বিরোধীতার মুখে রয়েছি।কিন্তু আমি মাঠে আছি। বাধার মুখে বিকল্পভাবে প্রচার-প্রচারণায় অংশ নিচ্ছি। জনগণ আমার সাথে আছে। কারণ শুধু দলীয় পরিচয় নয়, আমি ২টার্ম চেয়ারম্যান ছিলাম। দলমত নির্বিশেষে সবার পাশে থাকার চেষ্টা করেছি। তাই জনগণ নিরব সমর্থন দিয়ে যাচ্ছে। হয়তো নানা কারণে বিপদে পড়ার আশংকা থেকে সামনা সামনি আমার সাথে কাজ করছে না। তবে ঠিকই ভোট দিবে। যদি তারা ভোটটা দেওয়ার সুযোগ পায় তাহলে আমি জয়ী হবো ইনশাআল্লাহ।

সিরাজগঞ্জ বার্তা/২২ মে’২০১৬

ইউপি নির্বাচন: রায়গঞ্জে ছয়টিতে আ’ লীগ ও দুটিতে বিএনপি

চচনূর-এ আলম সিদ্দিক, রায়গঞ্জ থেকে
গত ২২ মার্চ’২০১৬ ইং তারিখে এ উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে ভোট গ্রহণ করা হয়। মোট ১০৫টি কেন্দ্রের ভোট গণনা শেষে পরদিন ২৩ মার্চ- মঙ্গলবার রাতে উপজেলা নির্বাচন সমন্বয়কারী ইকবাল আক্তার এ ফলাফল ঘোষণা করেন।
এরা হলেন- ধামাইনগর ইউনিয়নে রাইসুল হাসান সুমন (নৌকা), সোনাখাড়া ইউনিয়নে আবু হেনা মোস্তফা কামাল রিপন (নৌকা), চান্দাইকোনা ইউনিয়নে মো. আব্দুল হান্নান খান (নৌকা), ধানগড়া ইউনিয়নে ওবায়দুল ইসলাম মাসুম (নৌকা), ব্রহ্মগাছা ইউনিয়নে গোলাম ছরওয়ার লিটন (নৌকা) ও পাঙ্গাসী ইউনিয়নে আব্দুস সালাম (নৌকা)।

এছাড়া ধুবিল ইউনিয়নে হাসান ইমাম তালুকদার (ধানের শীষ) এবং ঘুড়কা ইউনিয়নে আবু সাইদ ভূঁইয়া (ধানের শীষ)।
আর নলকা ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল জব্বার সরকার চশমা প্রতীকে জয়ী হয়েছেন। ৯টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৪০ জন অংশ নেন।

জামানত হারানো ১৭ চেয়ারম্যান প্রার্থী
এদিকে এ নির্বাচনে জামানত হারিয়েছেন ১৭ জন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী। উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, চেয়ারম্যান পদে ৪০জন প্রাথীর মধ্যে জামানত হারানো প্রার্থীরা হলেন- ধামাইনগর ইউনিয়নে বিএনপির ইমতিয়াজ আলী মাহমুদ (ধানের শীষ), ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী মোকলেছার রহমান (হাতপাখা), সোনাখাড়া ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী আবদুল কুদ্দুস সেখ (মোটরসাইকেল), স্বতন্ত্র প্রার্থী শহিদুল ইসলাম সরকার (আনারস), স্বতন্ত্র প্রার্থী রঞ্জিত কুমার মাহাতো (ঘোড়া), ধুবিল ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী আবুল হাসেম সরকার (মোটরসাইকেল), ঘুড়কা ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী কে এম মেহেদী হাসান শহিদ (ঘোড়া), স্বতন্ত্র প্রার্থী সেরাজুল হক (চশমা), চান্দাইকোনা ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী আবু হানিফ খান (মোটরসাইকেল), ধানগড়া ইউনিয়নে জাতীয় পার্টির প্রার্থী এস এম সরোয়ার্দী (লাঙ্গল-২৬৭), স্বতন্ত্র প্রার্থী রুহুল আমীন (আনারস-১৮৯১), নলকা ইউনিয়নে বিএনপির প্রার্থী আবদুল গফুর (ধানের শীষ-১২৯১), স্বতন্ত্র প্রার্থী আজাদুর রহমান তালুকদার (ঘোড়া-২৫৫২), স্বতন্ত্র প্রার্থী তারিকুল ইসলাম (আনারস-২৪৩১), ব্রহ্মগাছা ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী আনিছুর রহমান(চশমা-১৮), স্বতন্ত্র প্রার্থী মফিজুর রহমান (মোটরসাইকেল-৫২২) ও স্বতন্ত্র প্রার্থী নাসির উদ্দিন মাহমুদ (আনারস-২৪৫১)।
নিয়ম মোতাবেক কোনো প্রার্থী প্রদত্ত বৈধ ভোটের ৮ ভাগের ১ ভাগ ভোট না পেলে তাঁর জামানত বাজেয়াপ্ত হয়।
সিরাজগঞ্জ বার্তা/১ এপ্রিল’২০১৬

ইউপি নির্বাচনে সমভোট: রায়গঞ্জের দুই কেন্দ্রে নির্বাচন অনুষ্ঠিত

রায়গঞ্জ (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি:
সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জ উপজেলায় সমভোটের নির্বাচন গত ২৮ জুলাই দুই কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হয়। এই নির্বাচনে পাঙ্গাসী ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের মেম্বার হিসাবে মহালম নির্বাচিত হয়েছেন। অপরদিকে ব্রহ্মগাছা ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডে তারিকুল ইসলাম মেম্বার হিসাবে জয়লাভ করেন।

উল্লেখ্য, গত ২৮মে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে এ দুটি ইউনিয়নের বৈকুণ্ঠপুর ও  গোদগাঁতী  ভোটকেন্দ্রে ৪ জন  মেম্বার প্রার্থী সমান সমান ভোট পায়। সেই ৪ প্রার্থীর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। কড়া পুলিশি নিরাপত্তার মধ্যদিয়ে শান্তিপূর্ণভাবে এ নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। ব্রক্ষগাছা ইউনিয়নের ওই ওয়ার্ডের ভোটার ছিলেন ১হাজার ৪১৯ জন এবং পাঙ্গাশী ইউনিয়নের সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডে ভোটার ছিলেন ৩হাজার ৫‘শ ৮জন।

শাহজাদপুরে ইউপি নির্বাচনে বিএনপি ৮, আওয়ামী লীগের ২ প্রার্থী বিজয়ী

উপজেলা প্রতিনিধি, শাহজাদপুর: বিচ্ছিন্ন কিছু ঘটনা ছাড়া গত বুধবার(১৫জুন ২০১১) সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার ১০টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন শান্তিপূর্ণভাবে শেষ হয়েছে।
নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী ৮টিতে এবং আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী ২টিতে বিজয়ী হয়েছেন। বিজয়ীরা হলেন- গাড়াদহ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ সমর্থিত সাইফুল ইসলাম (গরুর গাড়ি) ৮হাজার ২৩১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম বিএনপি সমর্থিত আব্দুল জব্বার (আনারস) পেয়েছেন ৩২৫৩ ভোট।

কায়েমপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী জিয়াউল হক ঝনু (দেয়ালঘড়ি) ১৪ হাজার ১৭৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রার্থী আওয়ামী লীগ সমর্থিত হাসেনুল হক হাসানের (কাপপিরিচ) প্রাপ্ত ভোট ৪ হাজার ৯৭৪ ভোট।
পোতাজিয়া ইউনিয়নে বিএনপি সমর্থিত রফিকুল ইসলাম তালুকদার চুন্নু (মাইক) ৭ হাজার ৬৭১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম আওয়ামী লীগ সমর্থিত মোহাম্মদ আলী (গরুর গাড়ি) পেয়েছেন ৬ হাজার ৪৩ ভোট।

রূপবাটি ইউনিয়নে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী আব্দুল লতিফ ( দেয়াল ঘড়ি) ৬ হাজার ১শ’ ৫৫ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম আওয়ামী লীগ সমর্থিত হাবিবুর রহমান (আনারস) পেয়েছেন ৪ হাজার ৭শ’ ৯৯ ভোট।
নরিনা ইউনিয়নে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী সাইফুল ইসলাম টেক্কা (তালা) ৩ হাজার ৭২৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম আওয়ামী লীগ সমর্থিত ফজলুল হক (মাইক) পেয়েছেন ৩ হাজার ৩৪০ ভোট।
বেলতৈল ইউনিয়নে বিএনপি সমর্থিত আব্দুস সালাম (আনারস) ১১ হাজার ৯০৩ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম আওয়ামী লীগ সমর্থিত ফেরদৌস হোসেন ফুল (গরুর গাড়ি) পেয়েছেন ৮ হাজার ৩শ’ ৫১ ভোট।
সোনাতনী ইউনিয়নে বিএনপি সমর্থিত নজরুল ইসলাম ফজলু (গরুর গাড়ি) ৬ হাজার ৩৩১ ভোট  পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম আওয়ামী লীগ সমর্থিত লুৎফর রহমান (আনারস) পেয়েছেন ৫ হাজার ৭৯৫ ভোট।

খুকনী ইউনিয়নে বিএনপি সমর্থিত মোঃ নজরুল ইসলাম (তালা) ১০ হাজার ৬০ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম আওয়ামী লীগ সমর্থিত সাজাহান আলী (আনারস) পেয়েছেন ৭হাজার ৬১৫ ভোট।

গালা ইউনিয়নে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত জহুরুল ইসলাম (জাহাজ) ৪ হাজার ৫৬ ভোট পেয়ে। নিকটতম স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল মান্নান (দোয়াত কলম) পেয়েছেন ৩ হাজার ৬২০।

শাহজাদপুরে চেয়ারম্যান প্রার্থীর ১০ হাজার টাকা জরিমানা

উপজেলা প্রতিনিধি, শাহজাদপুর

সিরাজগঞ্জ: বুধবার(৮ই জুন’ ২০১১) জেলার শাহজাদপুর উপজেলার কায়েমপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী রোকনুজ্জামান (প্রতীক আনারস) আচরণবিধি লঙ্ঘন করে অর্ধশতাধিক মোটর সাইকেল বহর নিয়ে শো-ডাউন করার জন্য ১০হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ১মাসের কারাদ- দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।
শাহজাদপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার(ইউএনও) রাসেল সাবরিনের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত তাকে এ জরিমানা করেন। খবর পেয়ে

জানা যায়, চেয়ারম্যান প্রার্থী রোকনুজ্জামান স্থানীয় গোপীনাথপুর থেকে কাশিনাথপুর পর্যন্ত নির্বাচনী শো ডাউন করে। খবর পেয়ে তাৎক্ষনিকভাবে ইউএনও’র নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত চেয়ারম্যান প্রার্থী রোকনুজ্জামানকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ১ মাসের জেল প্রদান করে। এর পর যদি আবারও আচরণবিধি লঙ্ঘন করা হয় তবে তার প্রার্থীতা বাতিল করা হবে বলে সতর্ক করে দেওয়া হয়। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চ্যল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

উল্লেখ্য, আগামী ১৫ জুন বুধবার এ ইউনিয়নের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনের দিন ঘনিয়ে আসায় প্রার্থীরা নানা কৌশলে ভোটারদের আকৃষ্ট করার  চেষ্টা করছে।এরই অংশ হিসাবে সে আচরণবিধি লঙ্ঘন করে এ শো ডাউন করে।

ইউপি নির্বাচন: রায়গঞ্জে ৫৯জন চেয়ারম্যানসহ মোট প্রার্থী ৫৯১ জন

উপজেলা প্রতিনিধি, রায়গঞ্জ:  সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জে ইউপি নির্বাচনের প্রার্থী বাছাই চূড়ান্ত হয়েছে। ৯টি ইউনিয়নের ৫৯ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী, সংরক্ষিত মহিলা সদস্য প্রার্থী ১১৯ জনসহ মোট ৫৯১ জন ভোটযুদ্ধে অবতীর্ণ হয়েছেন। সোমবার উপজেলা নির্বাচন অফিস থেকে পাওয়া তথ্যমতে, ধামাইনগর ইউনিয়নে ৫ জন চেয়ারম্যান ও সংরক্ষিত ১৬ জনসহ মোট প্রার্থী ৬০ জন। সোনাখাড়া ইউনিয়নে ৮ জন চেয়ারম্যান ও ১১ জন সংরক্ষিত সদস্যসহ মোট প্রার্থী ৬৩ জন। ধুবিল ইউনিয়নে ৭ জন চেয়ারম্যান ও ১২ জন সংরক্ষিত সদস্যসহ ৬৫ জন। ঘুড়কা ইউনিয়নে ১০ জন চেয়ারম্যান ও ১২ জন সংরক্ষিত সদস্যসহ মোট প্রার্থী ৬৭ জন। চান্দাইকোনা ইউনিয়নে ৫ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী ও সংরক্ষিত ১৬ জনসহ মোট প্রার্থী ৬৩ জন। ধানগড়া ইউনিয়নে ৭ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী ও সংরক্ষিত ১৬ জনসহ মোট প্রার্থী ৭৪ জন। নলকা ইউনিয়নে ৭ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী ও সংরক্ষিত ১৩ জনসহ মোট প্রার্থী ৬৯ জন। পাঙ্গাসী ইউনিয়নে ৪ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী ও সংরক্ষিত ১১ জনসহ মোট প্রার্থী ৫৫ জন। ব্রহ্মগাছা ইউনিয়নে ৬ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী ও সংরক্ষিত ১৫ জনসহ মোট প্রার্থী ৭১ জন।

 সিরাজগঞ্জ বার্তা/এমকে/১০ মে’ ২০১১

রায়গঞ্জে উৎসবমুখর পরিবেশে মনোনয়নপত্র দাখিল

উপজেলা প্রতিনিধি, রায়গঞ্জ:
ইউনিয়ন পরিষদ(ইউপি) নির্বাচনে জেলার রায়গঞ্জ উপজেলায় উৎসবমুখর পরিবেশ ও ব্যাপক জনসমাবেশের মধ্য দিয়ে চেয়ারম্যান ও মেম্বার পদপ্রার্থীরা মনোনয়ন পত্র দাখিল করেছেন।
গত বৃহস্পতিবার(৫মে’২০১১) ছিল এ উপজেলায় মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন। চেয়ারম্যান পদে ৯টি ইউনিয়নে ৪৮ জন এবং মেম্বার পদে ৪শ ১১ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। এর মধ্যে সংরক্ষিত মহিলা আসনে ৯৭ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেন।

চেয়ারম্যান পদে যারা মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন তারা হলেন: ধানগড়া ইউনিয়নে সাবেক ইউপি  চেয়ারম্যান ও উপজেলা আ’লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রইচ উদ্দিন জয়নাল, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক ফিরোজ উদ্দিন খান, সাবেক ইউপি সদস্য সদর উদ্দিন, থানা বিএনপির সেক্রেটারি শামসুল ইসলাম, আশরাফ আলী, রাসেদুল হাসান দুলাল ও মমতাজ উদ্দিন।
ব্রহ্মগাছা ইউনিয়নে নাসির উদ্দিন নাজির, লুৎফর রহমান মিষ্টি, আব্দুল মালেক মল্লিক, শামিম তালুকদার, বাহাদুর আলী ও আনোয়ার হোসেন।
পাঙ্গাসী ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা আলমগীর কবির খান, সাবেক চেয়ারম্যান আবু বক্কার সরকার, আব্দুস সালাম তালুকদার ও পল্টু তালুকদার।
নলকা ইউনিয়নে আজাদুর রহমান তালুকদার, আবু বক্কার সিদ্দিক, আব্দুল জব্বার, আলী আশরাফ, আব্দুল গফুর, রফিকুল ইসলাম ও শাহ আলম।
ধুবিল ইউনিয়নে আক্তারুল ইসলাম মুন্নু, আব্দুল করিম রেজা, নাজমুল ইসলাম তালুকদার, শহিদুল ইসলাম, আব্দুল গফুর ও জামাল উদ্দিন।
ঘুড়কা ইউনিয়নে ওসমান গণি, হারুনার রশিদ, আবু তালেব, আবু মুছা সেখ, তপন কুমার রায় ও আবু সাঈদ ভুইয়া।
ধামাইনগর ইউনিয়নে আবুল খায়ের আকন্দ, গোলাম রব্বানী,  রেজাউল হক মন্ডল, আব্দুল আজিজ ও শহিদুল ইসলাম।
সোনাখাড়া ইউনিয়নে আমজাদ হোসেন ছানা, আতাউর রহমান তালুকদার, আশরাফ আলী মাস্টার, শহিদুল ইসলাম সরকার, নূর হোসেন সরকার ও টি.এম আব্দুল মজিদ।
এবং চান্দাইকোনা ইউনিয়নে আব্দুল হালিম খান দুলাল, শফিকুল ইসলাম ঝন্টু, স্বপন কুমার দাস, আরিফুর রহমান ও জাহিদুল ইসলাম।

সিরাজগঞ্জ বার্তা/এমএনএস/ মে ০৭’ ২০১১ইং

সিরাজগঞ্জের ৯ উপজেলার ৭৮ ইউপি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা

সারাদেশে ২য় দফা ইউনিয়ন পরিষদ(ইউপি) নির্বাচনের ধারাবাহিকতায় সিরাজগঞ্জের ৯ উপজেলার ৭৮টি ইউনিয়নে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে। প্রথম রায়গঞ্জ উপজেলায় ইউপি নির্বাচনের মাধ্যমে শুরু হচ্ছে এ নিবাচন। আগামী ৩১ মে  থেকে ২২ জুন পর্যন্ত পর্যায়ক্রমে এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। তবে সীমানা নির্ধারণ নিয়ে জটিলতা এবং উচ্চ আদালতের স্থগিতাদেশ থাকার কারণে জেলার আরও ৪টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে না।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা নীতিশ চন্দ্র দে জানান, রায়গঞ্জ উপজেলার নয়টি ইউনিয়নে ৩১ মে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ তারিখ ৫ মে। সদর উপজেলার ১০টি ইউনিয়নে নির্বাচন ৫ জুন। মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ তারিখ আগামী ৯ মে। বেলকুচি উপজেলার ৬ ইউনিয়ন এবং কামারখন্দ উপজেলার ৪ ইউনিয়নের নির্বাচন ৯ জুন , মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ তারিখ ১৩ মে।  চৌহালী উপজেলার ৫ ইউনিয়ন এবং তাড়াশ উপজেলার ৮ ইউনিয়নের নির্বাচন ১২ জুন, মনোনয়ন দাখিলের শেষ তারিখ ১৬ মে। শাহজাদপুর উপজেলার ১১ ইউনিয়নের নির্বাচন ১৫ জুন, মনোনয়ন দাখিলের শেষ তারিখ ১৯ মে। কাজীপুর উপজেলার ১২ ইউনিয়নের নির্বাচন ১৯ জুন, মনোনয়ন দাখিলের শেষ তারিখ ২৩ মে। উল্লাপাড়া উপজেলার ১৩ ইউনিয়নের নির্বাচন ২২ জুন, মনোনয়ন দাখিলের  শেষ তারিখ ২৬ মে।

অন্যদিকে সীমানা নির্ধারণ নিয়ে জটিলতা এবং উচ্চ আদালতের স্থগিতাদেশ থাকার কারণে  চৌহালী উপজেলার  ঘোরজান, খাসপুকুরিয়া এবং শাহাজাদপুর উপজেলার হাবিবুল্লাহ নগর ও  পোরজনা এই ৪ ইউনিয়নের নির্বাচন কমিশন থেকে স্থগিত করা হয়েছে।