Category Archives: আমাদের কথা

নর্থবেঙ্গল মেডিকেল কলেজকে একাডেমিক অনুমোদন যেসব শর্তে

নূরনবী সিদ্দিক সুইন: সিরাজগঞ্জ শহরের ধানবান্ধিতে অবস্থিত বেসরকারি নর্থবেঙ্গল মেডিকেল কলেজকে ২০২০-২০২১ ও ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষের একাডেমিক অনুমোদন বেশ কয়েকটি শর্তে নবায়ন করেছে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়
মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগ এর উপসচিব বদরুন নাহারের সই করা এক স্মারকে গত ১৩ অক্টোবর এ অনুমোদন দেয়া হয়।
শর্তসমুহের মধ্যে রয়েছে-
১। হাসপাতালে ৪০০০০ বর্গফুট ফ্লোর স্পেস বৃদ্ধি করতে হবে।
২। বিএমএন্ডডিসি’র অধিভুক্তি হালনাগাদ করতে হবে।
৩। হাসপাতালের শয্যাসংখ্যা আরও ১৯৮টি বৃদ্ধি এবং বেড অকুপেন্সি রেট আরও ৩০% বৃদ্ধি করতে হবে।
৪। ফরেনসিক মেডিসিন, মাইক্রোবায়োলজি ও গাইনি বিভাগে ৪জন, প্যাথলজি বিভাগে ৩জন, এনাটমি, ফার্মাকোলজি ও কমিউনিটি মেডিসিন বিভাগে ২জন, ফিজিওলজি ও বায়োক্রেমিস্ট্রি বিভাগে ১জন শিক্ষক বৃদ্ধি করতে হবে।
৫। ১২টি টিউটোরিয়াল রুম ও লাইব্রেরিতে আরও ৬০টি আসন বৃদ্ধিসহ সার্ভিস রুল প্রণয়ন এবং একাডেমিক পরিবেশের দৃশ্যমান উন্নয়ন করতে হবে।
প্রয়োজনীয়ব্যবস্থা গ্রহণে রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, স্বাস্থ্যশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এবং রেজিস্ট্রার-বিএমএন্ডডিসিকে বিষয়টি জানানো হয়েছে।

সিরাজগঞ্জবার্তা.কম/১৫ সেপ্টেম্বর,২০২০/এনএস/

প্রত্যাশিত সিরাজগঞ্জের উদ্যোগে বৃক্ষরোপন কর্মসূচি

সিরাজগঞ্জ বার্তা.কম ডেস্ক:

জলবায়ু পরিবর্তনের হাত থেকে পরিবেশকে রক্ষার জন্য স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন প্রত্যাশিত সিরাজগঞ্জ এর উদ্যোগে সিরাজগঞ্জ জেলার সায়দাবাদস্থ মুলিবাড়ী মেরিন একাডেমীর সামনের রাস্তার ধারে ০৯ অক্টোবর ২০২০ইং তারিখে বিভিন্ন ফলজ, বনজ ও ঔষুধি বৃক্ষের ১৫০ টি চারা গাছ ( নিম-৩০ টি, আম-১০টি, মেহগনি-১০০ টি, আকাশমণি-১০ টি) রোপন করা হয়।

সংগঠনটির সহ সভাপতি পিডিবির উপ সহকারী প্রকৌশলী নূর এ আজম সিদ্দিক এর পাঠানো সংবাদবিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি জানানো হয়।

প্রত্যাশিত সিরাজগঞ্জ এর উক্ত বৃক্ষরোপন কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি ছিলেন সড়ক বিভাগ, সিরাজগঞ্জ এর নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ আশরাফুল ইসলাম, বিশেষ অতিথি ছিলেন সড়ক বিভাগ, সিরাজগঞ্জ এর উপ-সহকারী প্রকৌশলী জনাব অর্জুন রায় । প্রধান অতিথির বক্তব্যে আশরাফুল ইসলাম প্রত্যাশিত সিরাজগঞ্জ এর এমন উদ্যোগকে সাধুবাদ জানান এবং আরও বেশি বেশি বৃক্ষরোপনের উপর গুরুত্বারোপ করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট প্রকৃতিপ্রেমিক আবুল হোসেন গ্রীন।

এছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন উক্ত সংগঠনের সভাপতি জনাব মোঃ হেলাল উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক জনাব মোঃ রাসেল সরকার, সাংগঠনিক সম্পাদক জনাব মোঃ শাহাদত হোসেন, প্রচার সম্পাদক জনাব মোঃ সবুজ হোসেন, পরিবেশ ও বৃক্ষরোপন বিষয়ক সম্পাদক জনাব মোঃ ইমরান হোসেন, রক্তদান বিষয়ক সম্পাদক জনাব মোঃ শাহাদাৎ হোসেনসহ প্রমুখ।

১০ অক্টোবর’২০২০/এনএস/সিরাজগঞ্জ বার্তা.কম

রামেশ্বরগাঁতী পশ্চিমপাড়া জামে মসজিদের কমিটি গঠন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট- রায়গঞ্জ:

সিরাজগঞ্জ জেলার রায়গঞ্জ উপজেলার ৮নং পাঙ্গাশী ইউনিয়নের রামেশ্বরগাঁতী পশ্চিমপাড়া জামে মসজিদের প্রথম কমিটি গঠন করা হয়েছে। এতে সর্বসম্মতিক্রমে সভাপতি হিসেবে বাংলাদেশ পুলিশ বিভাগে চর্মরত মো. শামসুল ইসলাম-কে সভাপতি ও বেসরকারি সংস্থা এনডিপির কর্মকর্তা মো. নূর এ আলম সিদ্দিককে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করা হয়েছে। একইভাবে দলিল লেখক মো. আমজাদ হোসেন এবং ব্যবসায়ী মো. আনিছুর রহমানকে উপদেষ্টা করা হয়েছে।

কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন- সিনিয়র সহ সভাপতি মো. আলী আশরাফ আকন্দ(ব্যবস্থাপক-জোয়ার্দার প্রিন্টার্স, ঢাকা), সহ সভাপতি মো. শরিফুল ইসলাম আকন্দ ও মো. আব্দুল মোতালেব আকন্দ; কোষাধ্যক্ষ মো. আব্দুর রাজ্জাক আকন্দ, সহ সাধারণ সম্পাদক মো. মনিরুজ্জামান, পাঠাগার সম্পাদক হাফেজ মো. খবীর উদ্দীন, নিবাহী সদস্য- মো. রেজাউল করীম সেলিম (এজিএম, বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক), মো. জিন্নত আলী, মো. আবুল কাশেম আকন্দ, মো. ইসমাইল হোসেন বলাই প্রমুখ। সভায় কমিটির নেতৃবৃন্দ ছাড়াও অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাইক ওভারসিজের পরিচালক ও সিরাজগঞ্জ বার্তা.কমের সম্পাদক মো. নূরনবী সিদ্দিক সুইন, বাংলাদেশ বিদ্যুত উন্নয়ন বোডের্ রউপ সহকারী প্রকৌশলী মো. নূর এ আজম সিদ্দিক মানিক প্রমুখ।

গত ৩ আগস্ট’২০২০ সোমবার সন্ধ্যায় মসজিদ প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত বৈঠকে এ কমিটি গঠন করা হয়। এছাড়া সমজিদের উন্নয়নে বেশ কিছু সিদ্ধান্তও গৃহীত হয়। পরে এশার নামাজ জামাতে আদায়ের মাধ্যমে এ বৈঠকের সমাপ্তি হয়।

সিরাজগঞ্জবার্তা.কম/৬ আগস্ট’২০২০/

ফ্যাডক্যাব নির্বাচন; অনলাইনেও সরব প্রার্থীরা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: বিদেশে উচ্চশিক্ষা নিয়ে পরামর্শক প্রতিষ্ঠানসমুহের সংগঠন ফ্যাডক্যাব ( ফরেন অ্যাডমিশন এন্ড ক্যারিয়্যার ডেভেলপমেন্ট কনসালট্যান্টস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ) এর দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন ৪ ফেব্রুয়ারি। এ নির্বাচনকে ঘিরে ২ প্যানেলের প্রচার প্রচারণা জমে উঠেছে। চলছে স্বতন্ত্র প্রার্থীদেরও ব্যতিক্রমী ভোট প্রচার। আছে একজন নারী প্রার্থীও।

অনলাইনেও সরব প্রার্থীরা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক, ইউটিউবেও লাইভে নিজেদের তুলে ধরছেন তারা। এসএমএস, নানা ধরনের দৃষ্টিনন্দন পোস্টারও ডিজিটাল মাধ্যমে ভোটারদের কাছে পৌঁছে দিচ্ছেন তারা।

তবে সভাপতি পদে গত কমিটির সাধারণ সম্পাদক ফরিদুল হক্ হ্যাপি বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় এরই মধ্যে বিজয়ী হয়েছেন।

গঠনতন্ত্রে প্যানেলভিত্তিক নির্বাচনের বিধি না থাকলেও মিল্টন-মনিরুল- রেজা, অন্যদিকে সাজ্জাদ পারভেজ- গাজী তারেক-হাসান প্যানেলেই শেষ পর্যন্ত ভোট হচ্ছে। ২ পক্ষই এরইমধ্যে ৫তারকা হোটেলে প্রার্থী পরিচিতি সভার মাধ্যমে তাদের প্যানেল ও নির্বাচনী ইশতেহার প্রকাশ করেছে।

নির্বাচন কমিশনের পূর্ব নির্ধারিত শিডিউল অনুযায়ী আগামী ১ ফেব্রুয়ারি এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের কারণে এটি পিছিয়ে দেওয়া হয়। নির্বাচনে ৩ সদস্য বিশিষ্ঠ নির্বাচন কমিশন দায়িত্ব পালন করছে। মোট ভোটার রয়েছেন ১২০ জন। ১জন নারী প্রার্থীসহ ভোটে লড়ছেন ৩০ প্রার্থী।

নির্বাচনে যারা প্রার্থীরা হয়েছেন-

সাধারণ সম্পাদক পদে সানজেন ইন্টারন্যাশনালের মনিরুল হক মনির ও মুভস প্লাসের গাজী তারেক ইবনে মোহাম্মদ, সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে মুখলিসুর রহমান মিল্টন(হেল্প লাইন গ্লোবাল এডুকেশনাল কনসালট্যান্ট)  ও সাজ্জাদ পারভেজ (এডুকেশন ফর ইউ), সহ সভাপতি পদে মো. বশির আহমেদ (আইবিএম এডুকেশন সার্ভিস) ও মরতুজা হোসেন সরকার হিমেল ( এডুকেশন এন্ড ইমিগ্রেশন এক্সপ্রেস), যুগ্ম সম্পাদক -১ পদে খায়রুল আলম চৌধুরী( এডেপ্ট ইন্টারন্যাশনাল) ও মো. খুরশীদ আলম রিপন(পিনাকল এডুকেশন গ্রুপ), যুগ্ম সম্পাদক -২ পদে এইচএম মশিউর রহমান ( ইন্টারন্যাশনাল এডমিশন সাভিস) ও শামীম আহমেদ(ইউরো লিংক), সাংগঠনিক সম্পাদক পদে ডিসিএস এডুকেয়ারের রেজাউল করীম রেজা ও মোহাম্মদ আবুল হাসান (এডুওয়াইজ ফরেন কনসালট্যান্সি),

কোষাধ্যক্ষ পদে নাহিদুল ইসলাম রিয়াদ(এস এন্ড এইচ এডুকেশন কাউন্সিল) ও তানভিরুল ইসলাম মাহিম( এইটি গ্লোবাল লিমিটেড)),আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিষয়ক সম্পাদক পদে মেহেদী হাসান( ভিসা এক্সপার্ট) ও মুশতাক আহেমেদ টিপু (প্যাসিভিক গ্লোবাল), প্রকাশনা ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক পদে শফিকুল ইসলাম শিমুল  (বিডি এক্সপার্ট) ও মো. সোলাইমান(বিএসসি গ্লোবাল নেটওয়ার্ক), নির্বাহী সদস্য পদে মো. রাব্বানী হোসেন টিপু( এক্সিকিউটিভ ট্রেড ইন্টারন্যাশনাল), জুলফিকার আলী জুয়েল (সিএসবি এডুকেশন), ইমন খন্দকার(ট্রিয়স ইন্টারন্যাশনাল), এসএম আরিফুর রহমান (মালয়েশিয়া স্টাডি সেন্টার), মো. সাইফুল ইসলাম(শিওর সাকসেস এডুকেশন কনসালট্যান্টস), তফাজ্জ্বল হোসেন অ্যালড্রিন(ফাস্টওয়ে ইন্টারন্যাশনাল), আল লুমান (আউটরিচ কনসালট্যান্সি লিমিটেড), এফএম সাইফুল হক(দেশ এডুকেশন), জেবুননাহার(আলবার্তা এডুকেশন, সামিয়াল হাসান খান (ভিসা রিপাবলিক সেন্টার) ও মাজহারুল ইসলাম অপু।

২০০৫ সালে প্রতিষ্ঠিত এ সংগঠনটির সর্বশেষ কমিটিতে সভাপতি হিসেবে কন্টাক্টস ইন্টারন্যাশনালের মো. মোস্তাফিজুর রহমান এবং উপদেষ্টা হিসেবে বিএসবি গ্লোবাল নেটওয়ার্কের লায়ন এম কে বাশার দায়িত্ব পালন করেন।

নির্বাচন প্রসঙ্গে ফ্যাডক্যাবের ভোটার ও সিরাজগঞ্জ বার্তা.কমের সম্পাদক নূরনবী সিদ্দিক সুইন বলেন, একজন ভোটার হিসেবে আমি ফ্যাডক্যাব-কে অনন্য উচ্চতায় দেখতে চাই। যাতে একটি প্রতিষ্ঠান ফ্যাডক্যাবের সদস্য হিসেবে গর্ব করতে পারে। সরকারের নীতি নির্ধারকমহলে স্টেকহোল্ডার হিসেবে কাজ করতে পারে। সৎ, যোগ্য আর উদ্যমী প্রার্থীদেরকে বিজয়ী করার আহবান জানাচ্ছি। যারা এ ট্রেডের স্বার্থকেই বড় করে দেখবেন।

সিরাজগঞ্জবার্তা.কম/২৯ জানুয়ারি’২০২০/এনএস

উল্লাপাড়ার সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মারুফ বিন হাবিবের ইন্তেকাল

কে এম আব্দুল আলীম, উল্লাপাড়া

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মারুফ বিন হাবিব (৫৫) গতকাল রোববার বিকেল সোয়া ৪টায় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

সোমবার (২৭ জানুয়ারি’২০২০) সকালে উল্লাপাড়া সরকারি আকবর আলী কলেজ মাঠে তার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এতে বিপুল সংখ্যক মানুষ অংশ নেন।

তিনি উল্লাপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক পদে ছিলেন। জানা গেছে, তিনি পৌরসভার জমিদারবাড়ি নিজ বাসভবনে হৃদরোগে আক্রান্ত হলে দ্রুত খাজা ইউনুস আলী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথেই মারা যান। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, দুই মেয়েসহ বহু আত্মীয়স্বজন রেখে গেছেন।

অ্যাডভোকেট মারুফ বিন হাবিবের আগে এক মেয়াদে পৌরসভার চেয়ারম্যান পদে (মেয়র) পদে ছিলেন। এ ছাড়া স্থানীয় সরকারি কলেজের একবার জিএস ও দুবার ভিপি ছিলেন। তার অকালমৃত্যুতে সিরাজগঞ্জ-৪ (উল্লাপাড়া) আসনের সংসদ সদস্য তানভীর ইমাম গভীর শোক ও সমবেদনা জানিয়েছেন।

এ ছাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফা, যুগ্ম আহ্বায়ক অধ্যাপক ইদ্রিস আলী, উল্লাপাড়া পৌরসভার মেয়র এস এম নজরুল ইসলাম, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান পান্না, উপজেলা ইউপি চেয়ারম্যান ফোরামের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার শওকাত ওসমান শোক জানিয়েছেন।

মারুফ বিন হাবিবের জানাজায় অংশ নিতে ও শ্রদ্ধা জানাতে মানুষের ঢল নামে।

পাঙ্গাশীতে ‘প্রত্যাশিত সিরাজগঞ্জ’-এর কম্বল বিতরণ

প্রত্যাশিত সিরাজগঞ্জ এর কম্বল বিতরণ/১৭ জানুয়ারি’২০২০/পাঙ্গাশী, রায়গঞ্জ, সিরাজগঞ্জ

নূর এ আলম সিদ্দিক: সিরাজগঞ্জ জেলার রায়গঞ্জ উপজেলার পাঙ্গাশী ইউনিয়নের হতদরিদ্র মানুষের হাতে কম্বল তুলে দিয়েছে জেলার কিছু তরুণের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘প্রত্যাশিত সিরাজগঞ্জ’।

বৃহস্পতিবার(১৭ জানুয়ারি’২০২০) পাঙ্গাসী ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ১০০ জন মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণ করে সংগঠনের সদস্যরা।

কম্বল বিতরণ অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন পাঙ্গাসী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম সরকার, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মুজাম্মেল হক, সাধারণ সম্পাদক সুলতান মাহমুদ, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দাম হোসেন। 

সংগঠনের নেতাকর্মীদের উপস্থিত ছিলেন সহ-সভাপতি নূর-এ-আজম সিদ্দিক মানিক, মতিন খান, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আরিফুল ইসলাম, অর্থ-সম্পাদক ইসমাইল হোসেন রুবেল, সাংগঠনিক সম্পাদক শাহাদত হোসেন, প্রচার-সম্পাদক সবুজ হোসেন, রক্তদান বিষয়ক সম্পাদক শাহাদত হোসেন প্রমুখ।

সংগঠনের সহ-সভাপতি ও বিদ্যুৎ উন্নয়ন বের্ডের উপ সহকারী প্রকৌশলী নূর-এ-আজম সিদ্দিক মানিক বলেন, আমরা সম্পূর্ণ নিজেদের উদ্যোগে কোন সেবা সংস্থার সহায়তা ছাড়া সামাজিক বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করি। মানবিক দায়বদ্ধতার জায়গা থেকে শীতার্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছি।

সিরাজগঞ্জ বার্তা.কম/১৭ জানুয়ারি,২০২০

রায়গঞ্জে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান, ২৭ হাজার টাকা জরিমানা

রায়গঞ্জ প্রতিনিধি:
সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জ উপজেলায় খাদ্যদ্রব্যে ভেজাল বিরোধী অভিযানে ২৭ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।
গত বুধবার(৭ মার্চ’২০১২) সকালে রায়গঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রবিউল ইসলামের নেতৃত্বে এ ভ্রাম্যমাণ আদালতের কার্যক্রম পরিচালিত হয়।
বিএসটিআই এর রাজশাহী অফিসের সহযোগিতায় উপজেলার চান্দাইকোনাসহ কয়েকটি বাজারে ফল ও খাবার দোকানে অভিযান চালিয়ে ফরমালিন মিশ্রিত ও ভেজাল খাবার বিক্রির অপরাধে ২টি মিষ্টির দোকান ও ফলের দোকান থেকে এ জরিমানার টাকা আদায় করা হয়।

রায়গঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আনিছুর রহমান জানান, চান্দাইকোনা বাজারের সনজিতা মিষ্টান্ন ভান্ডার থেকে ১৫ হাজার, জবা দইঘর থেকে ১০ হাজার ও ভাইভাই ফল ভান্ডার থেকে ২ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৭২০ ঘণ্টা, মার্চ ০৮, ২০১২

সিরাজগঞ্জ শহর রক্ষা বাঁধে ভাঙন: তদন্ত কমিটির চূড়ান্ত প্রতিবেদন উপস্থাপন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
সিরাজগঞ্জ শহর রক্ষা বাঁধের হার্ড পয়েন্ট ভাঙ্গনে গঠিত তদন্ত কমিটি চূড়ান্ত প্রতিবেদন উপস্থাপন করা হয়েছে। রোববার(২১/০৮/২০১১) পানিসম্পদ মন্ত্রী রমেশ চন্দ্র সেনের সভাপতিত্বে সিরাজগঞ্জ শহর রক্ষা বাঁধের ভাঙনের কারণ এবং এর সমাধানে গঠিত তদন্ত কমিটির চূড়ান্ত প্রতিবেদন মাল্টিমিডিয়া প্রেজেনটেশন সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় তদন্ত কমিটির প্রধান আইডব্লিউএম এর নির্বাহী পরিচালক ড. মনোয়ার হোসেন উত্থাপিত প্রতিবেদনে ভাঙনের কারণ তুলে ধরে সুপারিশ করা হয়।
ভাঙ্গনের কারণ হিসেবে বলা হয়েছে, নদীর গতিপথ পরিবর্তন এবং অস্বাভাবিকভাবে হঠাৎ করে মাটির নিচে ঘূর্র্ণাবর্ত তৈরি হয়ে বড় ধরনের গর্তের সৃষ্টি হয়। প্রতিবেদনে দীর্ঘ ও স্বল্পমেয়াদি এবং স্থায়ী সুপারিশ করা হয়েছে। সুপারিশগুলো হলো, হার্ড পয়েন্টের উজানের অংশে প্রবাহের গতিপথ পরিবর্তনের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা এবং শুষ্ক মৌসুমে বাঁধ শক্তিশালী করার কাজ করা। চলতি বর্ষা মৌসুমে বাঁধ ভাঙ্গনরোধে স্বল্পমেয়াদি সুপারিশে বলা হয়েছে, মনিটরিং ব্যবস্থা জোরদার, প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি ব্যবহার, নিয়মিত ব্যাথমেট্রিক সার্ভে পরিচালনা, হার্ডপয়েন্টের অপর পাড়ে ডুবোচরটি ড্রেজিংয়ের মাধ্যমে পানির চাপ কমানো এবং হার্ড পয়েন্টের উপরের রাস্তা দিয়ে ভারি যানবাহন চলাচল নিষিদ্ধ করতে হবে।
পানিসম্পদ মন্ত্রী রমেশ চন্দ্র সেন বলেন, যমুনা হলো পৃথিবীর আনপ্রেডিক্টেবল নদীগুলোর অন্যতম। এ নদী শাসনের জন্য ক্যাপিটেল ড্রেজিংয়ের কোনো বিকল্প নেই। তাই ক্যাপিটেল ড্রেজিং এর মাধ্যমে হার্ড পয়েন্ট অঞ্চলকে ভরাট করে সিরাজগঞ্জ শহরকে রক্ষা করা হবে। একই সাথে যমুনা নদী থেকে বিশাল পরিমাণ ভূমি উদ্ধার করা সম্ভব হবে।
পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী মাহবুবুর রহমান তালুকদার এমপি, সচিব শেখ মো. ওয়াহিদ উজ জামান, বিশ্ব ব্যাংক ঢাকার প্রতিনিধি এস এ এম রফিকুজ্জামান, পানি উন্নয়ন বোর্ডের মহাপরিচালকসহ মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ এসময় উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, সিরাজগঞ্জ শহর রক্ষা বাঁধের হার্ড পয়েন্টের বিএল স্কুল সংলগ্ন স্থানে গত ১৮ জুলাই মধ্যরাতে ১৫০ ফুট দৈর্ঘ্য এবং ৫০ ফুট প্রশস্থ এলাকা আকস্মিকভাবে ভেঙ্গে যাওয়ার ঘটনায় পাঁচ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে কমিটিকে মন্ত্রণালয়ে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়। কমিটিকে বর্তমান ভাঙনের কারণ এবং স্থায়ী সমাধান সম্পর্কে সুপারিশ করতে বলা হয়েছিল। 

কমিটির অপর চার সদস্য হলেন- পানি উন্নয়ন বোর্ড (পশ্চিম অঞ্চল) অতিরিক্ত মহাপরিচালক মো: আজিজুল হক, পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সৈয়দ আবদুল মমিন, সিইজিআইএস’র উপ-নির্বাহী পরিচালক ড. মমিনুল হক সরকার এবং পানি উন্নয়ন বোর্ডের ডিজাইন সার্কেল-৬ এর নির্বাহী প্রকৌশলি মো: মোতাহার হোসেন।

 উল্লেখ্য, দেশের মৃত প্রায় নদ-নদীগুলিকে প্রবাহমান করার লক্ষ্যে নদী খননের মহা পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে বর্তমান সরকার। ভারত ও বাংলাদেশের মধ্য দিয়ে প্রবাহমান নদীগুলির মধ্যে অন্যতম নদী যমুনা নদী। এই যমুনা নদীকে প্রবাহমান রাখার লক্ষ্যে এবং কৃষি উৎপাদন, পরিবেশ রক্ষা, সেচ সম্প্রসারণ ও খরা মোকাবিলাসহ নদী পাড়ের মানুষের জীবনধারা স্বাভাবিক রাখতে নদীর তলদেশে উচু চর খনন, নদী ভাংগন প্রতিহত ও হ্রাস করা এবং ক্ষীণধারা চ্যানেল বন্ধ করার নিমিত্তে বাঁধ নির্মাণ, বাঁধ সংস্কারসহ প্রায় ১হাজার ২৮ কোটি টাকা ব্যয়ে সিরাজগঞ্জ হার্ড পয়েন্ট হতে বঙ্গবন্ধু ব্রিজের ভাটিতে ধলেশ্বরী নদীর অফটেক পর্যন্ত ২০ কি: মি: এবং নলীন বাজারের সন্নিকটবর্তী ২ কি: মি: দৈর্ঘ্যসহ ২২ কি: মি: দৈর্ঘ্যে  ক্যাপিটেল ড্রেজিং কাজ বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছে বর্তমান সরকার। এরই ধারাবাহিকতায় প্রাথমিক পর্যায়ে নলিন বাজারে ২ কি: মি: দৈর্ঘ্যে যমুনা নদীতে ৩৯ কোটি টাকা চুক্তি মূল্যে এরইমধ্যে ড্রেজিং কাজ শুরু হয়েছে। সিরাজগঞ্জ হার্ড পয়েন্ট হতে বঙ্গবন্ধু ব্রিজের ভাটিতে ধলেশ্বরী নদীর অফটেক পর্যন্ত ২০ কি: মি: নদী খননের জন্য এরমধ্যে আন্তর্জাতিক দরপত্র আহ্বান করা হয়েছে এবং বিভিন্ন দেশের বড় বড় ড্রেজিং কোম্পানি এতে অংশগ্রহণ করেছে। অতি শিগগিরই মূল্যায়ন কমিটির মাধ্যমে সর্বনিম্ন দরদাতাকে কার্যাদেশ প্রদান করা হবে এবং বর্ষার পরে কাজ শুরু করা হবে।

@২২ আগস্ট, ২০১১

এক নজরে সিরাজগঞ্জ

সিরাজগঞ্জ মধ্য বাংলাদেশে অবস্থিত একটি শহর। এটি ব্রহ্মপুত্র নদীর পশ্চিম তীরে, এবং ঢাকা শহর হতে প্রায় ১১০ কিলোমিটার (৭০ মাইল) উত্তর পশ্চিমে অবস্থিত। শহরটি সিরাজগঞ্জ জেলার প্রধান শহর। এখানে ১৫টি ওয়ার্ড এবং ৫২টি মহল্লা রয়েছে। ২০০১ সালের আদম শুমারি অনুযায়ী এর জনসংখ্যা ১২,৭১৪।

সিরাজগঞ্জ শহরকে এক সময় কলকাতা ও নারায়ণগঞ্জ এর সমতুল্য পাট ব্যবসায় কেন্দ্র হিসাবে গণ্য করা হত। বর্তমান কালেও এটি পাট ব্যবসায়ের একটি প্রধান কেন্দ্র, এবং সড়ক, রেল ও নৌপথে দেশের অন্যান্য অংশের সাথে যুক্ত। এখানকার পাট কল গুলি তদানিন্তন বাংলা প্রদেশের প্রথম দিককার পাট কলের মধ্যে পড়ে।
সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসনিক বিভাগ রাজশাহী
আয়তন (বর্গ কিমি) ২,৪৯৭
জনসংখ্যা মোট: ২৭,০৭,০১১
পুরুষ: ৫১.১৪%
মহিলা: ৪৮.৮৬%
শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা: বিশ্ববিদ্যালয়: ০
কলেজ : ৯০
মাধ্যমিক বিদ্যালয়: ২৪৮
মাদ্রাসা : ২৪৯
শিক্ষার হার ২৭.০ %
বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব যাদব চন্দ্র চক্রবর্তী
প্রধান শস্য ধান, পাট, গম
রপ্তানী পণ্য পাট ও পাটজাত দ্রব্য, গুড়, তাঁত বস্ত্র

অবস্থান
২৪’২২ ও ২৪’৩৭ উত্তর অক্ষাংশ এবং ৮৯’৩৬ ও ৮৯’৪৭ দ্রাঘিমা এর মধ্যে সিরাজগঞ্জের অবস্থান। রাজধানী ঢাকা থেকে এর দূরত্ব ১৪২ কিমি।

ভৌগলিক সীমানা
সিরাজগঞ্জ জেলার উত্তরে বগুড়া জেলা, দক্ষিণে পাবনা জেলা, পূর্বে টাঙ্গাইল ও জামালপুর জেলা ও যমুনা নদী এবং পশ্চিমে নাটোর জেলা অবস্থিত।

প্রশাসনিক এলাকাসমূহ
সিরাজগঞ্জকে জেলায় উন্নীত করা হ্য় ১লা এপ্রিল, ১৯৮৪ সালে। সিরাজগঞ্জের জেলা ৯টি উপজেলায় বিভক্ত। এ গুলো হল বেলকুচি, কামারখন্দ, চৌহালি, কাজীপুর, রায়গঞ্জ, শাহজাদপুর, সিরাজগঞ্জ সদর, তাড়াস, এবং উল্লাপাড়া।

চিত্তাকর্ষক স্থান
যমুনা সেতুর পাড়, সায়েদাবাদ। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কুটিবাড়ী, শাহজাদপুর। এনায়েতপুরী পীর সাহেবের মাজার এবং মসজিদ, চৌহালি। শিব মন্দির, তারাশ। নবরত্ন মন্দির, উল্লাপাড়া। মেযমুনা নদীর পাড়, যাকে সবাই বলে গ্রোইন আনেকেই বলে টাইটনিক স্কয়ার, সিরাজগঞ্জ সদর। ইলিওট ব্রীজ যা লোহার ব্রীজ বা বড় পুল নামে পরিচিত, সিরাজগঞ্জ সদর। সিরাজগঞ্জ সরকারী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ, সিরাজগঞ্জ সদর। কওমি জুটমিল, সিরাজগঞ্জ সদর

বিখ্যাত ব্যক্তিবর্গ
* সাবেক মন্ত্রী এম মনসুর আলী
* ড: আবদুল্লাহ আল মুতী শরফুদ্দিন
* কবি মহাদেব সাহা
* ফজলে লোহানী
* সুচিত্রা সেন

আমাদের সিরাজগঞ্জ

সিরাজগঞ্জ জেলা ২৪০০’ – ২৪৪০’ পশ্চিম অক্ষাংশে এবং ৮৯২০’ – ৮৯৫০’ পূর্ব দ্রাঘিমাংশে অবস্থিত । এ জেলার দক্ষিণে পাবনা, উত্তরে বগুড়া, পূর্বে টাঙ্গাইল ও জামালপুর, পশ্চিমে পাবনা, নাটোর ও বগুড়া জেলা অবস্থিত। এ জেলার আয়তন ২৪৯৭.৯২ ব: কি.মি.। তাঁত শিল্প এ জেলাকে বিশ্বের দরবারে পরিচিত করেছে। বঙ্গবন্ধু সেতু এবং সিরাজগঞ্জ শহররক্ষা বাঁধের অপূর্ব সৌন্দর্য এ জেলাকে পর্যটন সমৃদ্ধ জেলার খ্যাতি এনে দিয়েছে। তাছাড়া শাহজাদপুর উপজেলার রবীন্দ্র কাচারীবাড়ী, এনায়েতপূর খাজা ইউনুস আলী মেডিকেল কলেজ এ্যান্ড হাসপাতাল, মিল্কভিটা, বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম প্রান্তের ইকোপার্ক, বাঘাবাড়ী বার্জ মাউনন্টেড বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র, বাঘাবাড়ী নদী বন্দর ইত্যাদি বিখ্যাত স্থাপত্য ও শৈল্পকর্মের নিদর্শন এ জেলাকে সমৃদ্ধতর করেছে। বেলকুচি থানায় সিরাজউদ্দিন চৌধুরী নামক একজন ভূস্বামী (জমিদার) ছিলেন। তিনি তার নিজ মহালে একটি ‘গঞ্জ’ স্থাপন করেন। তার নামানুসারে এর নামকরণ করা হয় সিরাজগঞ্জ। তাঁর নামে নামকরণকৃত সিরাজগঞ্জ স্থানটি নদীভাঙ্গণে বিলীন হয়। পরবর্তীতে তিনি ভুতের দিয়ার মৌজা নিলামে খরিদ করেন। তিনি ভুতের দিয়ার মৌজাকেই নতুনভাবে ‘সিরাজগঞ্জ’ নামে নামকরণ করেন। ফলে ভুতের দিয়ার মৌজাই ‘সিরাজগঞ্জ’ নামে স্থায়ী রূপ লাভ করে। ভৌগোলিক কারণেই বন্যা, খরা, নদী ভাঙ্গনসহ বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগে এ জেলার জনসাধারণ জর্জরিত। এ সকল কারণে জনসংখ্যার একটি উল্লেখযোগ্য অংশ দরিদ্র ও বেকার। এ জেলার বেশিরভাগ লোক কৃষি ও তাঁত শিল্পের উপর নির্ভরশীল। তাছাড়া এ জেলার একটি উল্লেখযোগ্য জনগোষ্ঠী মৎস্য আহরণ করে জীবিকা নির্বাহ করে থাকে।